বাংলাদেশের গ্রাহকদের জন্য হিরো মোটোকর্প এর নতুন চমক “হিরো হাংক ১৫০আর”1 min read

বাংলাদেশের গ্রাহকদের কাছে সর্বোচ্চ মানের পণ্যটি পৌঁছে দেয়ার মাধ্যমে হিরো তার ব্র্যান্ড পোর্টফোলিও আরো সমৃদ্ধ করলো। বিশ্বের সর্ববৃহৎ মোটরসাইকেল ও স্কুটার ম্যানুফ্যেকচারার হিরো মোটোকর্প এদেশে বাজারে নিয়ে এলো লেটেস্ট বাইক মডেল ‘দ্য হিরো হাংক ১৫০আর।

২৭ আগস্ট রোজ শুক্রবার হিরো বাংলাদেশর অফিসিয়াল ফেজবুক সহ বিভিন্ন ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে লঞ্চিং ইভেন্টটি প্রচার করা হয়।

বিশেষ করে বাংলাদেশের বাজারের কথা বিবেচনা করেই দ্য প্রিমিয়াম হাংক ১৫০আর তৈরি করা হয়েছে, এই মোটরসাইকেলটি চালকদের রাইডিং স্টাইলে নতুনত্ব ও অতুলনীয় অভিজ্ঞতা এনে দেবে। বাইকটিতে রয়েছে সর্বোচ্চ মানের সিঙ্গেল-চ্যানেল (ABS), সেভেন ষ্টেপ অ্যাডজাস্টেবল মোনোশক সাসপেনশন এবং ‘নিরাপদ নিয়ন্ত্রণ’সুবিধা। এসব কারণে ‘দ্য হাংক ১৫০আর’সহজেই এদেশের তরুণদের নজর কাড়তে সক্ষম হবে।

চালাতে বেশ আরামদায়ক, সেরা পারফরম্যান্স ও অত্যাধুনিক ফিচারের ‘দ্য হাংক ১৫০আর’ বাইক এর উদ্বোধনী মূল্য রাখা হয়েছে ১৬৪,৪৯০/- টাকা (ডাবল ডিস্ক) এবং ১৭৪,৪৯০/- টাকা (ডাবল ডিস্ক ABS সহ), বাংলাদেশের সব অনুমোদিত ডিলার পয়েন্টগুলোতে মোটরসাইকেলটি পাওয়া যাবে।

এছাড়া মোটরসাইকেলটির নতুন সময়ের বৈচিত্র্যেময় স্টাইল, বাস্তবিক সেরা পারফরম্যান্স, নিয়ন্ত্রণ ক্ষমতা এবং সর্বোচ্চ মানের ‘১৩০/৭০ (R17)’ রিয়ার টায়ারসহ প্রয়োজনীয় সব ফিচার এটিকে যেকোনো পরিস্থিতিতে নিরাপদ পরিবহনে সক্ষম করে তুলেছে।

বাংলাদেশের বাজারে ‘দ্য হাংক ১৫০আর’মডেলের বাইক লঞ্চ প্রসঙ্গে হিরো মোটোকর্প এর গ্লোবাল বিজনেস প্রধান সঞ্জয় ভান বলেন, “বাংলাদেশ ক্রমাগত আমাদের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ও কৌশলগত বাজারগুলোর একটিতে পরিণত হতে যাচ্ছে। এদেশের গ্রাহকদের কথা মাথায় রেখেই ‘দ্য হাংক ১৫০আর’ মডেলটির নির্মাণ ও ডিজাইন করা হয়েছে। এবং এই উদ্যোগের মাধ্যমে ‘হাংক ১৫০আর’ও ‘থ্রিলার ১৬০আর’এর মতো মডেল বাজারে হিরো মোটোকর্প এর প্রিমিয়াম সেগমেন্টের পোর্টফোলিও আরো সমৃদ্ধ করবে। নতুন এই যাত্রার মাধ্যমে বাংলাদেশের গ্রাহকদের কাছে আকর্ষণীয় পণ্য পৌঁছে দেয়ার ক্ষেত্রে কোম্পানিটি তার প্রতিশ্রুতি আরো সম্প্রসারিত করেছে। ’হাংক ১৫০আর’ এর পথচলা প্রধান প্রধান বাজারগুলোতে ব্রান্ডের বিক্রি বাড়ানো ও সরব উপস্থিতি নিশ্চিত করার চারটি কৌশল (R4) (রেভিটালাইজ, রিকলিব্রেট, রিভাইব ও রেভ্যুলশনাইজ) নির্দেশ করে।”

প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালের এপ্রিলে নিটল-নিলয় গ্রুপের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগের মাধ্যমে হিরো মোটোকর্প বাংলাদেশে তার যাত্রা শুরু করে। ইতোমধ্যে যশোরে কোম্পানিটির একটি নান্দনিক ম্যানুফেকচারিং ফ্যাসিলিটি রয়েছে, সেখানে মোটরসাইকেল ও স্কুটারের বাৎসরিক ধারণ ক্ষমতা ১ লাখ ৫০ হাজার। বর্তমানে সারাদেশে নিলয় মটরস্ লিমিটেডের ৫০০ টির বেশি কাস্টমার টাচ পয়েন্ট রয়েছে। বাংলাদেশে হিরো-মোটোকর্প-ই প্রথম ম্যানুফেকচারার যেটি নিজস্ব পণ্যে ৫ বছরের ওয়ারেন্টি দিতে শুরু করে। বর্তমানে বাংলাদেশে প্রোডাক্ট লাইনআপে ৮ মোটরসাইকেল এবং ২ টি স্কুটার রয়েছে।

হিরো হাংক ১৫০আর

রাইডিং অভিজ্ঞতাঃ ‘দ্য হাংক ১৫০আর’এ রয়েছে ১৪৯.২ সিসি এয়ার-কুলড ইঞ্জিন, বাইকটি ১৪.২ (BHP) পাওয়ার এবং ১২.৫ (Nm) টর্ক প্রদানে সক্ষম। এছাড়া, দুর্দান্ত বাস্তবিক পারফরম্যান্সের ’দ্য হাংক ১৫০আর’ তুলনামূলকভাবে বেশ হালকা, পাশাপাশি এটির ডায়মন্ড টিউব্যুলার ফ্রেম সোজা ও বাঁকা রাস্তায় মোটরসাইকেলের নিয়ন্ত্রণ ও ভারসাম্যেও সুবিধা প্রদান করে। অধিকন্তু ১৩০/৭০ (mm) রেডিয়াল রিয়ার টায়ার এর যৌথ সমন্বয় ‘দ্য হাংক ১৫০আর’ কে যেকোনো পরিস্থিতিতে সাবলীল রাখে।

এছাড়া মোটরসাইকেলটির ‘এজিলিটি, স্ট্যাবিলিটি ও কমফোর্ট’মিলিয়ে রয়েছে রাইডিং ট্রায়াঙ্গেল সুবিধা। আরো আছে ‘ফার্স্ট-ইন-ক্যাটাগরি’সেভেন ষ্টেপ অ্যাডজাস্টেবল মোনোশক সাসপেনশন, যেটি বাইক চালকদের দুর্দান্ত ও আরমদায়ক অভিজ্ঞতা এনে দেবে।

উন্নতমানের ফিচারগুলোঃ ‘দ্য হাংক ১৫০আর’ এ রয়েছে বিভিন্ন নিরাপত্তা ফিচার ও সাথে আরো আছে নিরাপদ ব্রেকিং নিশ্চিয়তার জন্য ‘অপশনাল সিঙ্গেল-চ্যানেল (ABS)’। মোটরসাইকেলে আরো দেখা মিলবে নতুন ধাঁচের হুইল ডিজাইন, ২৭৬ (mm)  ফ্রন্ট এবং ২২০ (mm)  রিয়ার ডিস্ক ব্রেক, এটি বাইকটি চলমান অবস্থায় প্রয়োজনীয় যেকোনো পরিস্থিতিতে এটিকে থামিয়ে দেয়।

এছাড়া, সহজে ব্যবহারের জন্য এটিতে রয়েছে ‘সাইড স্ট্যান্ড ইনডিকেটর’এবং ‘ডিজি-অ্যানালগ ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টার’, ট্রিপ মিটার এবং সার্ভিস রিমাইন্ডার। বাড়তি সুবিধা হিসেবে সেলফ-স্টার্ট বাটনে রয়েছে ‘ইঞ্জিন কিল’ ফিচারও।

বৈচিত্র্যময় ডিজাইন ও স্টাইলঃ দ্য হাংক ১৫০আর এ রয়েছে বিশালাকার ফুয়েল ট্যাংক, এটির কারণে বাইকটি আরো আকর্ষণীয় দেখায়। আরো রয়েছে ভিন্নধর্মী  ‘রিয়ার কাউল’, ‘নেকড়ে-চোখা এলইডি পজিশন ল্যাম্প’ এর সমন্বয়ে চমৎকার হেডলাইট, সিগনেচার লাইড-গাইডসহ এলইডি টেইল-লাইট, যেটি অন্ধকারেও মোটরসাইকেলটির উপস্থিতি নিশ্চিত করে। অধিকন্তু, বাইকের স্পোর্ট ডাইনামিক গ্রাফিক্সও এটির নির্ভুল সৌন্দর্য তুলে ধরে।‘দ্য হাংক ১৫০আর’এর দুটি ভ্যারিয়েন্ট হলো  ‘ডাবল ডিস্ক’ এবং ‘ডাবল ডিস্ক উইথ সিঙ্গেল-চ্যানেল (ABS)’। গ্রাহকদের জন্য বাইকটি ৩টি আকর্ষণীয় রঙে পাওয়া যাবে স্পোর্টসরেড, ব্ল্যাক এবং টেকনো ব্ল।

আরও বাংলাদেশি ব্র্যান্ড সম্পর্কিত আপডেট জানতে মার্কেডিয়াম এর সাথে থাকুন।

Check Out
0 0 votes
Article Rating
You might also like
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
Subscribe to our newsletter
Sign up here to get the latest news, updates and special offers delivered directly to your inbox.
You can unsubscribe at any time

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x